Smiley face

ইউরোপের দেশ আয়ারল্যান্ডের একটি সমুদ্র সৈকতে হাজারো নারী একসঙ্গে নগ্ন হয়ে গোসল করার মাধ্যমে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন। আগের রেকর্ড ভাঙতে আয়ারল্যান্ডের ওই সমুদ্র সৈকতে জড়ো হয়েছিলেন ২ হাজার ৫০৫ জন নারী। রাশিয়ার সরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিতে এ নিয়ে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

আয়ারল্যান্ডের উইকলোর মাঘেরমোর নামক সৈকতে শুক্রবার ‘স্ট্রিপ অ্যান্ড ডিপ’ নামের ওই ইভেন্টটির আয়োজন করা হয়। গোটা আয়ারল্যান্ড থেকে নারীরা সর্বোচ্চ সংখ্যক উপস্থিতির মাধ্যমে গণহারে নগ্ন হয়ে সাঁতার কাটেন। বিশ্ব রেকর্ড গড়তে ইভেন্টে অংশগ্রহণ করেন ওই নারীরা।

আর এ সংক্রান্ত আগের রেকর্ডটি ছিল অস্ট্রেলিয়ার। ২০১৫ সালের মার্চে অস্ট্রেলিয়ার পার্থে এক সমুদ্র সৈকতে ৭৮৬ জন নারী অংশ নিয়ে আগের রেকর্ডটি গড়েন। কিন্তু চার বছরের মাথায় সেই রেকর্ডটি ভাঙতে তার তিনগুণেরও বেশি মানুষ উপস্থিত হয়েছিলেন আয়ারল্যান্ডের ওই ইভেন্টে।

অবশ্য ইউরোপের আরেক দেশ ফিনল্যান্ড পার্থের সেই রেকর্ড ভাঙার দাবি করে আসছে অনেকদিন ধরে। তাদের দাবি ফিনল্যান্ডে ২০১৭ সালে একটি মিউজিক ফেস্টিভালে ৭৮৯ জন যৌথভাবে নগ্ন হয়ে সাঁতার কেটে পার্থের সেই রেকর্ডটি ভেঙ্গে দিয়েছেন। তবে এবারের রেকর্ডটি আগের সব রেকর্ডকে খুব সহজেই ছাপিয়ে গেছে। আগে যা ছিল মাত্র ৭৮৬ কিংবা ৭৮৯ কিন্তু এবার সেই সংখ্যাটা দাঁড়ালো ২ হাজার ৫০৫ জনে।

তবে এই ইভেন্টের পেছনে আছে একটি মহৎ উদ্যোগ। কারণ এর মাধ্যমে উপার্জিত অর্থ ক্যানসারে আক্রান্ত শিশুদের সহযোগিতায় ব্যয় করা হবে। তাছাড়া সেখানে অংশগ্রহণকারী অনেক নারী নিজেও ক্যানসারে ভুগছেন।
অনুষ্ঠানের আয়োজকদের একজন ডি ফিথাস্ট্রোন বলেন, ‘এটা একজন নারীকে মূলত তার হতাশা থেকে মুক্ত করতে সাহায্য করবে। আর যারা ক্যানসারে আক্রান্ত তারা পুনরায় নিজেদের শরীরের ওপর দাবি করার সাহস পাবেন কিংবা বেঁচে থাকার প্রেরণা পাবেন।’

Smiley face

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here