রাতে মুখোমুখি রিয়াল -বার্সা

19

লা লিগায় তিনদিনের ব্যবধানে আবারো মুখোমুখি হচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা। আর এল ক্লাসিকোর লড়াই দেখতে অপেক্ষায় গোটা ফুটবলবিশ্ব। কোপা দেল রের সেমিফাইনালে জয়ের পর লা লিগায়ও জয় তুলে নিতে বেশ আত্মবিশ্বাসী বার্সা শিবির।

অন্যদিকে, হারের ক্ষত ভুলে স্প্যানিশ লিগে ঘুরে দাড়াতে চায় জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। রিয়ালের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় আজ রাত পৌনে ২টায়।

একটি ম্যাচের দিকে তাকিয়ে গোটা বিশ্ব। থাকবেই না কেন। স্প্যানিশ ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। ঐতিহ্যের এই লড়াইকে ভালোবেসে ভক্তরা বলেন ‘এল ক্লাসিকো’।

মহাকাব্যিক এই লড়াইয়ের আগে হিসেবের খাতা খোলা যাক। সাম্প্রতিক পারফর্মেন্সে ধরা ছোঁয়ার বাইরে বার্সেলোনা। সবশেষ ম্যাচে রিয়ালের বিপক্ষে ৩-০ গোলের জয়। আর রিয়ালের বিপক্ষে শেষ ২০ ম্যাচের ১২টিতেই জয় কাতালানদের। রিয়াল জিতেছে মাত্র ৪টিতে, বাকিগুলো ড্র। তবে রিয়ালের আশার যোগাচ্ছে পূর্ব ইতিহাস। দু’দলের মোট ১৭৭টি ম্যাচে ৭২টি জয় নিয়ে এগিয়ে রয়েছে রিয়াল।

ধ্রুপদী এই লড়াইয়ের আগে ছেদ পড়েছে মাদ্রিদিস্তানদের শিবিরে। ইনজুরির কারনে খেলতে পারবেন না মার্কস লরেন্তো ও রাফায়েল ভারানে। একাদশে থাকা নিয়ে সংশয় আছে অধিনায়ক সার্জিও রামোসের। আর দলে বাজীর ঘোড়া গ্যারেথ বেল ফর্মে না থাকলে শনির দশা ছাড়বে না সান্তিয়াগো সোলারির শিষ্যদের।

রিয়াল মাদ্রিদ কোচ সান্তিয়াগো সোলারি বলেন, লিগের শুরুতে আমরা পিছিয়ে থাকলেও দিন দিন আমরা টেবিলে ভালো অবস্থানে উঠে এসেছি। আমরা গত ম্যাচের দিকে তাকাতে চাচ্ছি না। আমরা আমাদের সেরা খেলাটা খেলেই ম্যাচ বের করে আনবো

সময়টা ভালো যাচ্ছে বার্সার। লিগে ৩ নম্বরে থাকা রিয়ালের চেয়ে ৯ পয়েন্ট এগিয়ে। তার উপর দারুণ ছন্দে মেসি-লুই সুয়ারেজরা। তবে ইনজুরির কারণে এ ম্যাচে আর্থার, রাফিনিয়োর সার্ভিস মিস করবে বার্সা। তবে খেলাটা যে রিয়ালের ঘরের মাঠে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ীদের বিপক্ষে তাই বাড়তি সতর্কতা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দের।

বার্সেলোনা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে বলেন, রিয়াল শক্ত দল। তাদের বিপক্ষে জিততে হলে আপনাকে সেরা খেলাটাই খেলতে হবে। দল সাজাতে বিশেষ পরিকল্পনা আছে আমার। আশা করি ওদের মাঠে শেষ ম্যাচের ফলাফলটা ধরে রাখতে পারবো আমরা

এসব পরিসংখ্যান আর অনুমান থোরাই কেয়ার। মাঠের ধ্রুপদী খেলায় দুই জায়ান্টের লড়াইয়ে মুহূর্তেই পাল্টাবে রং। আর ক্লাসিক ম্যাচে যারা সুযোগ কাজে লাগাবে, তারাই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়বে। এখন শুধু তা উপভোগের অপেক্ষায় ফুটবল প্রেমীরা।