চট্রগ্রাম- চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা বড়লিয়া গ্রামের এক কিশোরী পহেলা বৈশাখে প্রেমিকের সঙ্গে ঘুরতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। রোববার চট্টগ্রাম নগরের ঘুরার সময় তাকে প্রেমিক ও তার বন্ধু ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ।

ধর্ষিতার পরিবারের দাবী বন্ধুরা ঐ কিশোরীকে ধর্ষণ করার ফলে অতিরিক্ত রক্তকরন বন্ধ না হওয়ায় সন্ধ্যা ৭টার সময় সিএনজি (অটোরিক্সা) যোগে চট্টগ্রাম শহর থেকে পটিয়া হাসপাতালে নিয়ে আসে তার পরিবার।

পটিয়া হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: বাবলু দাশ জানান, দুজন মিলে কিশোরীকে ধর্ষণের ফলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়। সন্ধ্যা ৭টার সময় তাকে মুমুর্ষ অবস্থায় পটিয়া সরকারি মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে এলে মেয়েটির অবস্থা আশংকাজনক দেখে তাকে দ্রুত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

ধর্ষিতার ভাই দিদার জানান, তার সহজ সরল বোনকে ফুসলিয়ে প্রেমের নামে ছলনা করে পটিয়া উপজেলার কচুয়াই গ্রামের রিপন নামে এক প্রতারক। ধর্ষক রিপন (২৬) একজন গাড়ি চালকের সহকারী বলে জানিয়েছে দিদার।

তিনি বলেন, রবিবার বর্ষবরণ অনুষ্ঠান দেখার নামে তার বোনকে শহরে নিয়ে রিপনের এক বন্ধুসহ তার বোনকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। বর্তমানে তার বোনের অবস্থা ভালো নয়। প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে জানিয়ে তার বোন একটু সুস্থ হলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানায় কিশোরীর ভাই দিদার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here